আমেরিকায় পবিত্র ঈদুল ফিতর রোববার

115

আমেরিকায় আগামি রোববার ২৪ মে পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপিত হবে। করোনার তাণ্ডবে এবারের ঈদ উদযাপন হবে সম্পূর্ণ এক ভিন্ন পরিবেশে।কড়া নির্দেশনাবলি অনুসরণ করে এবার ধর্মীয় সমাবেশ পালন করা যাবে।

গত বৃহস্পতিবার থেকে নিউইয়র্কে অনধিক ১০ জন নিয়ে ধর্মীয় সমাবেশ করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। ফলে আসছে সপ্তাহান্তে ১০ জনের ঈদুল ফিতরের জামাত করা যাবে। কোথাও ১০ জনের বেশি সমাগম করা যাবে না। জামাতে যোগ দেওয়া সবাইকে মাস্ক পরতে হবে। ধর্মীয় সমাবেশে যোগদানকারীদের সামাজিক দূরত্ব নির্দেশাবলি মনে চলতে হবে। প্রত্যেককে মাস্ক পরতে হবে। ধর্মীয় স্থাপনার পার্কিং লট বা ড্রাইভওয়ে অর্থাৎ খোলা জায়গায় ধর্মীয় সমাবেশ করার জন্য পরামর্শ দিয়েছেন রাজ্যের গভর্নর।

যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় মৃত  ৯৮ হাজারের উপরে এরমধ্যে আড়াই শতাধিকের উপর প্রবাসীর মৃত্যু নিয়ে ঈদের আনন্দ এবার অনেকটাই ফিকে হয়ে পড়েছে। অনেক প্রবাসী পরিবার প্রিয়জন হারিয়েছে, অনেকে হারিয়েছে কাছের স্বজন বা বন্ধু–বান্ধবকে। ঈদ উপলক্ষে এবারে নিউইয়র্ক  সহ আমেরিকার অন্যাঅন্য অঙ্গরাজ্যে ঈদের কোনো জমজমাট কর্মসূচি নেই । ঈদে প্রবাসিদের নেই কোনো জমজমাট আয়োজন । তবুও মানুষ নামছেন  সীমিত আাকারে ঈদের আয়োজনে।

এদিকে নিউইয়র্কের রাজ্য গভর্নর, নিউইয়র্ক ধাপে ধাপে খুলে দেওয়ার শুরু হয়েছে। নিউইয়র্কে অধিকাংশ মসজিদে সীমিত আকারে ঈদের জামাত করার কথা ভাবছেন। জ্যাকসন হাইটসের ডাইভার্সিটি প্লাজা, জ্যামাইকা মুসলিম সেন্টার, বায়তুল আমান মসজিদসহ ব্রুকলিন ও ব্রঙ্কসে অতীতের মতো খোলা ময়দানে বিশাল বিশাল ঈদের সমাবেশ এবার হচ্ছে না। অনেকেই পারিবারিকভাবে পার্কিং লটে বা গ্যারেজে আত্মীয়স্বজন নিয়ে দশ জনের সীমাবদ্ধতা মেনে ঈদের জামাতের প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

ঈদগাহ ময়দানে জামাতের পরিবর্তে বর্তমান বাস্তবতায় নিউইয়র্ক ঈদগাহ থেকে ইমাম কাজী কায়্যুম রোববার সকাল সাড়ে নয়টায় ফেসবুক লাইভে ঈদের ভার্চ্যুয়াল জামাত করবেন বলে ঘোষণা করেছেন। নিউইয়র্কের কিছু কিছু ইমাম এ নিয়ে ভিন্ন বক্তব্য দিলেও ইমাম কাজী কায়্যুম বলেছেন, ধর্ম ও সরকারের সব নির্দেশনা মেনেই এমন জামাতের আয়োজন করা হয়েছে। তিনি সবাইকে ফেসবুক লাইভে ঈদের জামাতে যোগ দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

এমন উদ্বেগ উৎকণ্ঠার মধ্য দিয়েই প্রবাসীদের এবারের ঈদ আয়োজন।

(Visited 17 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here