যুক্তরাষ্ট্র যুবদলের আলোচনায়, মির্জা ফখরুল বলেন এই সরকার সামরিক শাসকের ছেয়েও ভয়ঙ্কর

47

বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান এবং যুবদলের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সভাপতি বরকত উল্লাহ ভুলু সহ দেশে এবং প্রবাসে করোনায় আক্রান্ত সকলের আরোগ্য কামনায় বিশেষ দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে যুক্তরাষ্ট্র যুবদল।

গত ৪ ডিসেম্বর ভার্চুয়াল দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে যুক্তরাষ্ট্র যুবদল । উক্ত সভায় সভাপতিত্ব করেন যুক্তরাষ্ট্র যুব দলের সভাপতি জাকির এইচ চৌধুরী এবং পরিচালনা করেন যুক্তরাষ্ট্র যুবদলের সাধারণ সম্পাদক আবু সাঈদ আহমদ।ভার্চুয়াল দোয়া মাহফিল ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। বিশেষ অতিথি ছিলেন যুবদলের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি সাইফুল আলম নীরব। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে অংশগ্রহণ করেন যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক জিল্লুর রহমান জিল্লু, সাবেক সহসভাপতি ও জ্যামাইকা মুসলিম সেন্টারের সাধারণ সম্পাদক মঞ্জুর আহমদ চৌধুরী, জাসাস কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সম্পাদক গোলাম ফারুক শাহীন, যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি নেতা চৌধুরী সালেহ আহমদ, ক্যালিফোর্নিয়া স্টেট বিএনপির সভাপতি বদরুল আলম চৌধুরী শিপলু, সাধারণ সম্পাদক এম. ওয়াহিদ রহমান, পেনসিলভেনিয়া স্টেট বিএনপির সভাপতি শাহ ফরিদ, শরীফ খান, নিউইয়র্ক স্টেট বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমান সাইদ, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবদলের সাবেক সহসভাপতি জাহাঙ্গীর হোসাইন, যুক্তরাষ্ট্র যুবদলের যুগ্ম সম্পাদক মোহাম্মদ আবুল কাশেম, আমানত হোসেন আমান, মিজানুর রহমান মিজান, নিউইয়র্ক স্টেট যুবদলের সভাপতি কাজী আমিনুল ইসলাম স্বপন, সাধারণ সম্পাদক রেজাউল আজাদ ভুঁইয়া, যুক্তরাষ্ট্র যুবদল নেতা খলকুর রহমান, ফ্লোরিডা যুবদল নেতা মতিউর রহমান খান, মোহাম্মদ ফিরোজ, নাসিম খান, আহসান আহমেদ হিমেল, মিথেল আহমেদ, মোহাম্মদ নাঈম দাউদ, নিউইয়র্ক স্টেট যুবদলের সহ সভাপতি বি. এম বাদশাহ, এমদাদ তরফদার, হাসান আহমেদ, সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুক আহমদ সুজন, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক জাহাঙ্গীরআলম জয়, যুগ্ম সম্পাদক সাজেদুল ইসলাম অরিক, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক চৌধুরী মোমিততানিম আহমেদ, ব্রুকলিন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর সোহরাওয়ার্দী,জাতীয়তাবাদী ফোরামের সাধারণ সম্পাদক মোতাহার হোসেন, কোকো স্মৃতি পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবদলের সাবেক নেতা মাসুদ রানা প্রমুখ ।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর তার বক্তব্যে বলেন, করোনা শুরুর পরপরই আমরা সরকারকে করোনা নিয়ে পরামর্শ দিয়েছিলাম। কিন্তু সরকার সেই পরামর্শ গ্রহণ করেনি। যে কারণে বাংলাদেশে করোনা মহামারি আকার ধারণ করেছে। সরকার করোনা নিয়ন্ত্রণে পুরোপুরি ব্যর্থ হয়েছে। তিনি আরও বলেন, এই সরকার আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের পন্থা অবলম্বন করেছে। ট্রাম্প বলেছে কোনো টেস্ট কোনো করোনা নেই। বর্তমান ফ্যাসিস্ট সরকারও একইভাবে করোনা টেস্ট করাচ্ছে না। করোনা টেস্ট করালেই করোনা রোগী শনাক্ত হবে। সেই সাথে স্বাস্থ্য বিভাগে চলছে চরম দুর্নীতি। তিনি বলেন, করোনা নিয়ে এই সরকার মানুষের সাথে প্রতারণা করেছে। তিনি আরও বলেন, আগের রাতে ভোট ডাকাতি করে এই সরকার ক্ষমতা দখল করেছে। ক্ষমতা দখলের পর তারা ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য নানা অপকৌশল অবলম্বন করেছে। যার মধ্যে একটি হচ্ছে বিএনপি, যুবদল এবং এর অঙ্গসংগঠনের নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা ও হয়রানিমূলক মামলা। বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাদের বিরুদ্ধে ১ লাখের বেশি মামলা করা হয়েছে, আসামি করা হয়েছে প্রায় ৩৫ হাজার। মামলা এবং হয়রানির ভয়ে অনেকেই পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। ঢাকায় এসে কেউ কেউ রিকশা চালাচ্ছেন ও হকারি করছেন। অপর অপকৌশল হচ্ছে রাষ্ট্রের সকল প্রতিষ্ঠানকে দলীয়করণ করা হয়েছে এবং তা গণতন্ত্রকামী মানুষের বিরুদ্ধে ব্যবহার করছে। তিনি আরও বলেন, এই সরকার কোনো সামরিক সরকার নয়, তবে এই সরকার হচ্ছে একটি ভয়ঙ্কর জালেম সরকার। তারা বিনা বিচারে মানুষ হত্যা করছে। গণতন্ত্রের মা বেগম খালেদা জিয়া বন্দী। তিনি বলেছেন, গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় আমাদের জাতীয় ঐক্য প্রয়োজন। জাতীয় ঐক্য প্রতিষ্ঠা করে এই জুলুম সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলন গড়ে তুলে তত্ত্বাবধায়ক সরকার এবং নতুন নির্বাচন কমিশনের অধীনে নির্বাচনের মাধ্যমে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে। এর জন্য অতীতের মতো যুবদলকে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে হবে।


জ্যাকসন হাইটস জামে মসজিদের খতিব মাওলানা আব্দুস সাদিকরে পরিচালনায়, বিশেষ ভার্চুয়াল দোয়া মাহফিলে বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা এবং শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান ও আরাফাত রহমান কোকোর আত্মার মাগফেরাত কামনা করা হয় । এতে যুক্তরাষ্ট্র বি এন পি, যুবদল ও দলের অংগ-সংগঠনের প্রচুর নেতা কর্মী অংশগ্রহন করেন ।

এ ছাড়া বরকত উল্লাহ বুলু ছাড়াও করোনায় আক্রান্ত বিএনপির স্থায়ী কমিটির অন্যতম সদস্য নজরুল ইসলাম খান, বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ, সহ তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক কাদের গনি চৌধুরী, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবদলের সভাপতি রফিকুল আলম মজনু, অসুস্থ যুবদলের কেন্দ্রীয় দপ্তর সম্পাদক কামরুজ্জামান দুলাল, জাসাস কেন্দ্রীয় কমিটির উপদেষ্ঠা ও বাংলাদেশ সোসাইটির সাবেক সভাপতি আজমল হোসেন কুনুর আরোগ্য কামনা এবং যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সাবেক যুগ্ম সম্পাদক বাকির আজাদ, সাবেক ছাত্রনেতা তানভীর খান প্রিন্স, সাবেক যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি নেতা ও বাংলাদেশ সোসাইটির সাবেক সভাপতি আবুল খায়ের, যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি নেত্রী রাশেদা আহমেদ মুনসহ করোনায় নিহতদের আত্মার মাগফেরাত কামনায় দোয়া করা হয়।

(Visited 39 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here